আক্রান্ত দেশ-আক্রান্ত ইসলাম

৳ 20.00

বইটি সরাসরি অর্ডার করতে ফোন করুন এই নাম্বারে -01675933468

বইটি অনলাইনে পড়তে ক্লিক করুন এখানে

বইটি ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে

বইটি অনলাইনে ক্রয় করতে নিচের “Add to cart”  এ ক্লিক করুন

Category:

Description

এ শতাব্দীর গোড়া থেকেই সমগ্র বিশ্বে চলছে জঙ্গিবাদের ইস্যুতে যুদ্ধ, রক্তপাত ও অস্থিরতা। সাম্রাজ্যবাদীরা আফগানিস্তান, ইরাক, লিবিয়া, সিরিয়া ইত্যাদি দেশে আগ্রাসন চালিয়ে লক্ষ লক্ষ মানুষ হত্যা করেছে, উদ্বাস্তু করেছে, দেশগুলো ধ্বংস করে দিয়েছে। তাদের মূল লক্ষ্যবস্তু হচ্ছে ইসলাম। তাই ইসলামের নামে ভয়াবহ সন্ত্রাসবাদকে তারাই নানা কলা-কৌশলে বিস্তার ঘটাচ্ছে যেন তাদের অস্ত্রবিক্রির বাজার বিস্তৃত হয়।
সম্প্রতি বাংলাদেশে কয়েকটি জঙ্গি হামলার পর সকলেই অনুধাবন করছেন যে জঙ্গিবাদ এখন আন্তর্জাতিক সংকট থেকে জাতীয় সংকটে পরিণত হয়েছে। শক্তি প্রয়োগ করে চেষ্টা করা হচ্ছে বহু বছর থেকেই কিন্তু লাভ হচ্ছে না। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ অনেক জ্ঞানীগুণীরা বলেছেন যে ইসলামের প্রকৃত শিক্ষার বিস্তার ঘটাতে হবে। প্রশ্ন হচ্ছে সেই শিক্ষাটি কোথায় পাওয়া যাবে?
আদর্শের এই সংকটটি অনুধাবন করে হেযবুত তওহীদের প্রতিষ্ঠাতা এমামুয্যামান জনাব মোহাম্মদ বায়াজীদ খান পন্নী ২০০৯ সনে তদানীন্তন সরকারের উদ্দেশে একটি প্রস্তাবনা পেশ করেছিলেন। সেই প্রস্তাবনার মূল কথা ছিল, শুধু শক্তিপ্রয়োগ করে জঙ্গিবাদ নির্মূল করা যাবে না, কারণ একটি ভ্রান্ত ধর্মীয় দর্শন দিয়ে তাদের ধর্মবিশ্বাস তথা ঈমানকে ভুল পথে প্রবাহিত করা হয়েছে। ফলে তারা বিশ্বাস করছে যে এই কাজগুলো করলে আল্লাহ খুশি হবেন এবং তারা জান্নাতে যেতে পারবে। তাই জঙ্গিবাদ নির্মূল করতে হলে শক্তি প্রয়োগের পাশাপাশি একটি সঠিক আদর্শ অপরিহার্য যা দিয়ে ধর্মীয় দলিল প্রমাণের দ্বারা জঙ্গিবাদের তত্ত্বকে অসার প্রমাণ করা যাবে। সেই আদর্শ আল্লাহ হেযবুত তওহীদকে দান করেছেন। আমরা এটি প্রদান করে জঙ্গিবাদ নির্মূলে জাতিকে সহযোগিতা করতে চাই। ধর্মের অপব্যাখ্যা দ্বারা বিপথে চালিত হয়ে আমাদের তরুণরা তাদের ইহকাল ও পরকাল দুটোই ধ্বংস করে দিচ্ছে তা অনুধাবন করে এমাম্য্যুামান অত্যন্ত ব্যথিত হয়েছিলেন এবং সম্পূর্ণ নিঃস্বার্থভাবে এই প্রস্তাবনাটি প্রদান করেছিলেন।
প্রস্তাবনাটি তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবরে লিখে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, ধর্ম মন্ত্রণালয়, তথ্য মন্ত্রণালয়, বিজিবি প্রধান, পুলিশ প্রধান, গোয়েন্দা প্রধানসহ গুরুত্বপূর্ণ আঠারোটি দফতরে প্রেরণ করেছিলেন। সরকারের তরফ থেকে কোনো উত্তর না পেয়ে তিনি দুইবার লিখিতভাবে বিষয়টি স্মরণ করিয়ে দিয়েছিলেন। যাহোক, আমরা নিজেদের ঈমানী দায়িত্ব ও সামাজিক কর্তব্যবোধ দ্বারা উদ্বুদ্ধ হয়ে তখন থেকেই জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে আদর্শিক লড়াই শুরু করি। গত তিন বছরে আমরা সারা দেশের শহর, বন্দর, গ্রাম, গঞ্জে গিয়ে সর্বস্তরের মানুষকে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সচেতন করে তোলার জন্য চল্লিশ হাজারের উপর পথসভা, জনসভা, সেমিনার, র‌্যালি, প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠান করেছি, পত্রিকা, বই, পুস্তিকা, প্রচারপত্র ইত্যাদি প্রচার করেছি এবং এখনও করে যাচ্ছি। মানুষের ধর্মবিশ্বাস একটি প্রচ- শক্তি যাকে ভুল পথে পরিচালিত করে বিপর্যয় সাধন করা হচ্ছে। কিন্তু এই ঈমানকেই সঠিক পথে প্রবাহিত করা গেলে তা মানবতার অসীম কল্যাণ সাধন করতে সক্ষম হবে। এ পুস্তিকাটি তারই পথনির্দেশ।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “আক্রান্ত দেশ-আক্রান্ত ইসলাম”

Your email address will not be published. Required fields are marked *